যমজ চার সন্তানের জনক মোহসিন একজন ‘সার্থক বাবা’ হয়ে উঠতে চান

নিউজ ডেক্স১৭ জুন ২০১৯: প্রতি বছরের ন্যায় এ বছর তৃতীয় রবিবার হিসেবে আজ ১৬ জুন পালিত হচ্ছে দিবসটি। বিয়ের আট বছর পর একসঙ্গে চার সন্তানের বাবা হতে পারায় নিজেকে সার্থক বাবা মনে করলেও আর্থিক দৈন্যতার কারণে তাদের লালন-পালনে অনেকটাই হিমশিম খাচ্ছেন মোহসিন আলী।

তবুও বাবা হওয়ার পর আজ প্রথম বাবা দিবসে চার সন্তানের সুস্থতা কামনাসহ সৃষ্টিকর্তার কাছে শুকরিয়া আদায় করেন তিনি।গাইবান্ধা সদর উপজেলার থানসিংহপুর গ্রামের মোহসিন আলী ও হাসিনা আক্তার পপি দম্পতি। বিয়ের আট বছরেও কোনো সন্তান না হওয়ায় মানসিক যন্ত্রণাসহ চরম হতাশায় ভুগছিলেন তারা। একটা সন্তানের জন্য চিকিৎসার পাশাপাশি কত কিৱ-না করেছেন তারা।

শেষ পর্যন্ত গত বছর ৮ সেপ্টেম্বর একসঙ্গে চার সন্তানের জন্ম দেন পপি। প্রসববেদনা উঠলে পপিকে রংপুর নগরীর প্রাইম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। হাসপাতালের গাইনি চিকিৎসক লায়লা হাসনা বানু ওই দিন দুপুর আড়াইটার দিকে ওই গৃহবধূর অস্ত্রোপচার করলে পরপর চার সন্তানের জন্ম হয়। যার মধ্যে রয়েছে দুই ছেলে ও দুই মেয়ে। গত বছর ৯ সেপ্টেম্বর সংবাদ মাধ্যমে ‘একসঙ্গে চার সন্তানের জন্ম দিলেন পপি’।

সরেজমিনে গাইবান্ধার থানসিংহপুর গ্রামে মোহসিন আলী ও পপি দম্পতির বাড়িতে গিয়ে দেখা যায়, একই সঙ্গে বড় হচ্ছে চার সন্তান মুসফিকা, মাহমুদুল্লাহ, মাহমুদুল ও মনিষা। কেউ হাসছে, কেউ কাঁদছে, কেউ খাচ্ছে, কেউ-বা কোলে উঠে বাবা-মায়ের আদর নিচ্ছে। যেন অভাবের সংসারেও ঘরকে সারাক্ষণ আলোকিত করে রাখছে একসঙ্গে জন্ম নেওয়া চার ভাই-বোন। ঈদের ছুটিতে বাড়িতে এসে চার সন্তানকেই সময় দিচ্ছিলেন মোহসিন।

চার সন্তানের মা হাসিনা আক্তার পপি জানান, শত কষ্টের মাঝেও ধীরে ধীরে বড় হয়ে উঠছে চার সন্তান। তবে জ্বর, সর্দিসহ যেকোনো অসুখ হলে একসঙ্গে চারজনেরই হয়। সে কারণে তাদের শিশু বিশেষজ্ঞ ডা. হারুনুর রশিদের তত্ত্বাবধানে রাখা হয়েছে।

অপর দিকে গর্বিত বাবা মোহসিন আলী ঢাকায় একটি প্রাইভেট কম্পানিতে চাকরি করতেন। স্বল্প বেতনে আগে কোনো রকমে চলে গেলেও ওই টাকায় সন্তানদের খরচ যোগানো সম্ভব নয়। তাই তিনি ওই চাকরি ছেড়ে বর্তমানে ঢাকায় রেন্ট-এ-কার চালান। তিনি জানান, কষ্ট হলেও মহাজনের গাড়ি চালিয়ে দিন চলে যাচ্ছে।দীর্ঘদিন পর হলেও একসঙ্গে চার সন্তানের বাবা হওয়ায় গর্ববোধ করেন মোহসিন। চার সন্তানের আদর্শ বাবা হয়ে যেন থাকতে পারেন- বাবা দিবসে এ জন্য তিনি সবার দোয়া ও সহযোগিতা কামনা করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

shares