মাশরাফির নেতৃত্বে শ্রীলঙ্কা সফরে যাচ্ছে টাইগাররা

স্পোর্টস ডেক্স,  ১৩ জুলাই ২০১৯গত ৭ জুলাই বিশ্বকাপ থেকে দেশে ফেরার পর বিমানবন্দরেই মাশরাফি বিন মুর্তজাকে। প্রশ্ন করা আপনি কি শ্রীলঙ্কা সফরে যাবেন? উত্তরে ওয়ানডে অধিনায়ক বলেছিলেন, এখনো ঠিক করিনি। সবার সঙ্গে কথা বলে সিদ্ধান্ত নেব, শ্রীলঙ্কা সিরিজে যাচ্ছি কী, যাচ্ছি না।

তবে গতকাল সাপ্তাহিক ছুটির দিনে মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে সকাল ১১টায় শ্রীলঙ্কা সফরের দল নিয়ে মিটিং করেন নির্বাচকরা। ওই মিটিংয়ে হাজির ছিলেন মাশরাফি। তাতেই শ্রীলঙ্কা সফরে তার অংশগ্রহণের অনিশ্চয়তা অনেকটাই কেটে গেছে গতকাল।

বিশ্বকাপের শেষ দিকে মাশরাফির অবসরের আলোচনায় সরগরম হয়েছিল বাংলাদেশের ক্রিকেটাঙ্গন। বিশ্বকাপেই তার ক্যারিয়ারের শেষ দেখেছিলেন অনেকে। বিশ্বকাপে ৮ ম্যাচে ১ উইকেট পেয়েছিলেন তিনি। এই পারফরম্যান্সের কারণে মাশরাফি অনেক সমালোচিত হয়েছিলেন। বিসিবির বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে, বোর্ডের শীর্ষ কর্তা ব্যক্তিদের পরামর্শেই বিশ্বকাপে অবসরের ঘোষণা দেননি মাশরাফি।

চলতি বছরেই যে কোনো সময় দেশের মাটিতে বিদায় বলবেন তিনি। আর তার বিদায়কে স্মরণীয় করতে পরিকল্পনাও করছে বিসিবি। নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু, হাবিবুল বাশারের সঙ্গে মাশরাফি ছাড়াও গতকাল এই মিটিংয়ে যোগ দিয়েছিলেন বিসিবি পরিচালক খালেদ মাহমুদ সুজন। কারণ এই সিরিজে তার উপরই বর্তাচ্ছে টাইগারদের ভারপ্রাপ্ত কোচের দায়িত্ব।

গতকাল তিনি বলেন, ‘আমাদের কাছে সে খেলবে না এমন কিছু খবর আসেনি।’ তবে বিশ্বকাপ জুড়ে বয়ে বেড়ানো হ্যামস্ট্রিংয়ের চোটের কারণে মাশরাফিকে নিয়ে দুর্ভাবনা থাকছেই।হাবিবুল বাশারের আশা, লঙ্কা সিরিজের আগেই পুরোপুরি সুস্থ হয়ে যাবেন অধিনায়ক। তিনি বলেন, ‘আমি মনে করি সে ফিট আছে। আর আমার কাছে মনে হয় যে, মাশরাফির ফিটনেসটা অনেকটাই নিজের ওপরে। একটি ফিটনেস টেস্ট তো দিতেই হবে।

সাকিব আল হাসান ও লিটন দাসের লঙ্কা সফরে খেলার সম্ভাবনা নেই। তাদের সম্ভাব্য বিকল্প ঠিক করার বিষয়টি মিটিংয়ে আলোচনা হয়েছে। গতকাল বিসিবি সূত্রে জানা গেছে, লিটন দাস না থাকায় সুযোগ পেতে পারেন ইমরুল কায়েস। তৃতীয় ওপেনার হিসেবে এনামুল হক বিজয়ের চেয়ে বিবেচনায় এগিয়ে আছেন ইমরুল। বিশ্বকাপ থেকে ফিরে বিশ্রামে আছেন ক্রিকেটাররা।

হাবিবুল বাশার গতকাল বলেছেন, ‘কয়েকজনের ইনজুরি চিন্তা আছে। সেই রিপোর্টগুলো আমরা হাতে পাইনি এখনো। অবশ্য মাহমুদউল্লাহর ইনজুরি নিয়ে দুশ্চিন্তা আছে, মাশরাফির একটু ইনজুরির ব্যাপার আছে, মুশফিকেরও আছে। তবে আমরা যতদূর জানি যে, তারা মোটামুটি পারবে।’ বিশ্বকাপের ব্যর্থতা ভুলে শ্রীলঙ্কায় নতুন শুরুর আশা করছেন নির্বাচকরা। হাবিবুল বাশার বলেছেন, ‘এছাড়া আমার মনে হয় যে, অবশ্যই এই সিরিজটিতে নতুন করে শুরু করার দরকার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

shares