বিশ্বকাপ ক্রিকেট ২০১৯-এ কে হবেন লর্ডসের লর্ড?

স্পোর্টস ডেক্স,  ১৪ জুলাই ২০১৯:   ফাইনালে কে হবেন লর্ডসের লর্ড? ইয়ন মরগ্যান, জেসন রয়, জস বাটলার, জোফরা আর্চার নাকি কেইন উইলিয়ামসন, ম্যাচ হেনরি বা ট্রেন্ট বোল্টের কেউ?শেষ হাসি কার? স্বাগতিক ইংল্যান্ড নাকি নিউজিল্যান্ডের? সামনে থেকে নেতৃত্ব দেবেন কে, ইয়ন মরগ্যান না কেন উইলিয়ামস?

আজ প্রশ্নের শেষ নেই। কৌতূহল আর গুঞ্জনেরও কমতি নেই। স্বাগতিক ইংলিশ-ব্রিটিশদের বাড়তি উৎসাহ, উদ্দীপনা আর প্রাণচাঞ্চল্য এবং সাড়াশব্দ কম মনে হলেও লর্ডসের ফাইনাল নিয়ে ক্রিকেট বিশ্বে জল্পনা-কল্পনার কমতি নেই একটুও।ইতিহাস জানাচ্ছে লর্ডসে অধিনায়কদের ব্যাট হাতে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়ে দলকে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন করার রেকর্ড আছে এর আগে একজন মাত্র অধিনায়কের, তিনি ক্লাইভ লয়েড।

১৯৭৫ সালে প্রথম বিশ্বকাপ ফাইনালে এই লর্ডসে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে অসাধারণ এক ম্যাচ জেতানো শতরান করে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে প্রথম একদিনের ক্রিকেটে বিশ্বসেরার মুকুট উপহার দিয়েছিলেন তখনকার ক্যারিবীয় অধিনায়ক লয়েড। ৮৫ বলে এক ডজন বাউন্ডারি ও দুই ছক্কায় ১০২ রানের ইনিংসটিই ছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিশ্বকাপ জয়ের মূল ভীত।

এর আগের পরিসংখ্যানে দেখা যাচ্ছে আগের ১১ ফাইনালে সেঞ্চুুরি হয়েছে মোট ৫টি। যার ৪টিতেই গড়ে উঠেছে ম্যাচ ভাগ্য। তার মাত্র দুটি করেছেন বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন দলের অধিনায়ক ক্লাইভ লয়েড (১৯৭৫) আর রিকি পন্টিং ( ২০০৩ সালে)।এখন এবার ফাইনালে কি হবে? ব্যাট হাতে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়ে দল জেতাবেন কে? কেন উইলিয়মাসন না ইয়ন মরগ্যান?

এবারের বিশ্বকাপের পারফরমেন্সকে মানদন্ড ধরলে এ লড়াইয়ে এগিয়ে কিউই ক্যাপ্টেন উইলিয়ামসন। এবারের আসরে ৯ খেলায় দুই সেঞ্চুরি আর দুই হাফ সেঞ্চুরিতে ৫৪৮ রান করে রান তোলায় এখন পাঁচ নম্বরে উইলিয়ামসন। আর দল টেনে নেবার ক্ষেত্রে অধিনায়কদের মধ্যে এক নম্বরে।

সে তুলনায় ইংলিশ অধিনায়ক মরগ্যান পিছনে। ১০ ম্যাচে ১টি করে সেঞ্চুরি-হাফসেঞ্চুরিতে মরগ্যানের স্কোর ৩৬২। অবশ্য তিন ইংলিশ উইলোবাজ জো রুট (১০ ম্যাচে ৫৪৯ রান ২ সেঞ্চুরি, ৩ হাফসেঞ্চুরি), বেয়ারস্টো (১০ ম্যাচে ৫২৬ রান) আর জেসন রয় (৭ ম্যাচে ৪২৭ রান)) অধিনায়ক মরগ্যানের কাজ এগিয়ে দিচ্ছেন।

ফাইনালে দু’দলের এই ব্যাটসম্যানদের পাশাপাশি সবার চোখ আরও চারজনের দিকে। তারা সবাই ফাস্ট বোলার। একজন ইংলিশ; জোফরা আর্চার। বাকি তিনজন কিউই- ট্রেন্ট বোল্ট, ম্যাট হেনরি ও লকি ফার্গুসন। তিনজনই বল হাতে দুর্দান্ত পারফরম করেছেন। দলের ফাইনালে উঠে আসার পেছনে তাদের অবদানও প্রচুর।

ক্যারিবীয় বংশোদ্ভূত ফাস্ট বোলার আর্চার ১০ ম্যাচে ১৯ উইকেট নিয়ে উইকেট শিকারে তিন নম্বরে আছেন। ফাইনালের আগে তাকে নিয়েও অনেক কথাবার্তা। নিউজিল্যান্ডের ফার্গুসনও ১৮ উইকেট দখল করে আর্চারের তার ঘাড়েই নিঃশ্বাষ ফেলছেন। এছাড়া ট্রেন্ট বোল্ট পেয়েছেন ৯ ম্যাচে ১৭ উইকেট, ম্যাট হেনরি ৮ ম্যাচে ১৩ উইকেট।দেখা যাক এদের কে হন এবারের ফাইনালের সেরা পারফরমার?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

shares